রবিবার, আগস্ট ১৪, ২০২২
Homeঅস্ট্রেলিয়াসম্প্রতি গোপালগঞ্জের সড়ক দূর্ঘটনা নিয়ে সিডনিতে গণ শোকসভা ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

সম্প্রতি গোপালগঞ্জের সড়ক দূর্ঘটনা নিয়ে সিডনিতে গণ শোকসভা ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

ড: রতন কুন্ডু: গতকাল ২২ মে (রবিবার) লাকেম্বার ধান সিঁড়ি রেস্টুরেন্টে এই উপলক্ষে শোক সভা, প্রতিবাদ সমাবেশ ও লাকেম্বা স্কোয়ারে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সিডনীর বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতা কর্মীরা এতে অংশ নেন।

ডঃ রতন লাল কুন্ডুর সভাপতিত্বে ও আকিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় নিরাপদ সড়ক, নিরাপদ মৃত্যুর গ্যারান্টি, ট্রাফিক সিস্টেমের অব্যবস্থাপনা, চালকদের অদক্ষতা, সর্বোপরি পাবলিক চলাচলের রাস্তায় ধান মাড়াই, পাট শুকানোর বিরুদ্ধে কথা বলেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন নিহত বাসুদেব সাহার ভাই রাজেশ সাহা, ভ্রাতৃবধু মৌসুমী সাহা, রাকেশ সাহা, গাউসুল আলম শাহজাদা, শামীমা সুমি, শুভ সাথী, তিশা তানিয়া, পূরবী পারমিতা বোস, আব্দুল্লাহ আল মামুন, আয়েশা কলি, নামিদ ফারহান, আসমাউল হুসনা, শায়লা টিংকু, শামীমা শিউলি, সুমি আজাদ, শুভ সাথী, পলি ফরহাদ, নাজু আহমেদ, আয়েশা আবিদ, পলি আহমেদ, নাহিদা সুলতানা, মিশু শারমীন হক, এস এম রুবেল,সুহৃদ সোহান হক প্রমুখ।

সভায় নিন্মলিখিত প্রস্তাবনা পাশ হয়ঃ

শোকসভা ও প্রতিবাদ সমাবেশের খবর দেশে বিদেশের পত্রিকায় সম্প্রচার করে জনমত তৈরী করা।

বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে একটি স্মারকলিপি, বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, যোগাযোগ, স্বরাষ্ট্র ও সড়ক পরিবহন মন্ত্রী মহোদয়দের অবহিত ও কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রেরণ করা।

স্থানীয় প্রশাসনঃ বিভাগীয় কমিশনার, ডেপুটি কমিশনার, নির্বাহী কর্মকর্তাদের স্মারকলিপি প্রদান।

মৃত ড্রাইভার আজিজ এর পরিবারের জন্য একটি ফান্ড রেইজিং প্রোগ্রামের মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করে তার পরিবারকে প্রদান করা। জনমত তৈরীর জন্য লাকেম্বা স্কয়ারে একটি মানব বন্ধন করা।

খবরে প্রকাশ অসুস্থ মাকে দেখতে ঢাকা থেকে গোপাগঞ্জ যাচ্ছিলেন বাসুদেব সাহার পরিবার। গাড়িতে ছিলেন বাসুদেব সাহা, তাঁর স্ত্রী শিবানী সাহা, ছেলে স্বপ্নীল সাহা ও গাড়ির ড্রাইভার আজিজুল ইসলাম।

বাস, মোটর সাইকেল আর প্রাইভেট কারের ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত হন ড্রাইভার সহ বাসুদেব সাহার পরিবার। পুরো পরিবারের নেমে আসে ঘনঘোর অমানিশা। প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় জানা যায় ঐ রাস্তায় ধান মাড়াই হচ্ছিলো। ধানের খড়ের উপর দিয়ে যাওয়ার সময় বাস মোটর বাইক আর প্রাইভেট গাড়ির চাকা পিছলে গিয়েই ঘটে এই মহা দুর্ঘটনা।
বাসুদেব সাহা ঢাকা বারডেম হাসপাতালের অ্যানেসথেসিও লজিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন দীর্ঘদিন।

স্থানীয় মানুষের ভাষ্য অনুযায়ী বাসুদেব সাহা ছিলেন বিনয়ী ও একজন পরোপকারী মানুষ। উল্লেখ্য বাসুদেব সাহার ছোট ভাই রাজেশ সাহা পরিবার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বাস করছেন সিডনীতে। রাজেশ সাহার স্ত্রী মৌসুমী সাহা সিডনীর বাঙালী কমিউনিটির জনপ্রিয় মুখ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব। নৃত্যাঞ্জলী নামে একটি নাচের গ্রূপ আছে তাঁর। এই দুর্ঘটনায় রাজেশ সাহার পরিবার সহ, পুরো সিডনীর
বাঙালী কমিউনিটিতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

spot_img

পপুলার পোস্ট

নতুন কমেন্টস